গলাচিপায়সকল প্রকার যৌন ও বৈষম্য দূরীকরণে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস পালিত

মু. জিল্লুররহমান জুয়েল, পটুয়াখালী।
পটুয়াখালীর গলাচিপায় জনসংখ্যা ও উন্নয়নের আন্তর্জাতিক সম্মেলনের ২৫ বছর প্রতিশ্রুতির দ্রুত বাস্তবায়ন প্রতিপাদ্যের আলোকে গলাচিপা উপজেলায় বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস/১৯ পালিত হয়।
স্থানীয় প্রতিনিধির পাঠানো তথ্যে ১১ জুলাই  বৃহস্পতিবার গলাচিপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স থেকে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের মাঠ কর্মকর্তা ও সেবাদান কারী কর্মীদের সমন্বয়ে এক বর্ণাঢ্য র‌্যালি মিছিল বের করে। পরে গলাচিপা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের তাৎপর্য্য এবং নিয়ন্ত্রন বিষয়ে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা আবু সুফিয়ান ইমরান। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মনির হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন গলাচিপা প্রেসক্লাবের সভাপতি খালিদ হোসেন মিলটন, সহকারী পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মো. মোয়াজ্জেম হোসেন, গলাচিপা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. সোহাগ রহমান, বেসরকারি সংস্থা কেয়ার বাংলাদেশ এর প্রজেক্ট অফিসার মো. রমিজ উদ্দিন।
 অনুষ্ঠানে বক্তারা বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের দেশের সকল ক্ষেত্রে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পরিবার নিয়ন্ত্রন, পরিবারের অর্থনীতি, সামাজিক ও নারীর ক্ষমতায়নে অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণ এবং সকল প্রকার যৌন বৈষম্য দূরীকরণে এবং পরিকল্পিত পরিবার উন্নয়নের লক্ষ্যে বক্তারা বিভিন্ন বিষয়ে অভিমত ব্যক্ত করেন।
জনসংখ্যা দিবসে গলাচিপা উপজেলা পর্যায়ে ৬ জন মাঠ কর্মী ও কর্মকর্তা সহ বেসরকারি সংস্থার ২ জন প্রতিনিধিকে বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস উপলক্ষ্যে তাদের কাজের সাফল্যকে মূল্যায়ন করে ক্রেস্ট ও সার্টিফিকেট অতিথিদ্বয় প্রদান করেন।
 অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন  চিকনিকান্দি ইউনিয়ন পরিদর্শক তাইমুল ইসলাম, রতনদী তালতলী ইউনিয়ন পরিদর্শক মো. জসিম উদ্দিন, খোদেজা বেগম, সুশীলন এর প্রতিনিধি শামীমা ইয়াসমিন, গজালিয়া ইউনিয়ন সহকারী স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সমরেশ বাবু ও মাঠ কর্মী নাজমা শিরিন প্রমুখ।

মন্তব্য

মন্তব্য