বাংলা বলতে গিয়ে নাজেহাল বরুণ-আলিয়া

বিনোদন ডেস্ক : যারা বাঙালি না তাদের জন্য বাংলা বলাটা অনেকটা চ্যালেঞ্জ। সেটি আরেকবার প্রমাণ করলেন বলি সেলিবেট্রি আলিয়া ভাট ও বরুণ ধাওয়ান।বাংলা বলতে গিয়ে তাদের  রীতিমতো দাঁত ভেঙে যাওয়ার উপক্রম। এ দুই বলি তারকার বাংলা বলার সেই ভিডিওটি বেশ উপভোগ করছেন সিনেপ্রেমীরা। যদিও তাদের এমন বাংলা বাক্য বলতে দেয়া হয়েছে যে, এসব বাক্য দ্রুত বলতে গিয়ে বেগ পেতে হয় বাঙালিদেরই।

সম্প্রতি আলিয়া ও বরুণ ধাওয়ান ইউটিউব চ্যানেল ‘দ্যা বং গাই’- এ হাজির হয়েছিলেন। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক কিরণ দর্শকদের আনন্দ দিতে বাংলা ভাষার কয়েকটি জটিল বাক্য এ দুই তারকাকে বলতে বলেন।

বাক্যগুলো হলো- ‘জলে চুন তাজা, তেলে চুল তাজা’, পাখি পাঁকা পেঁপে খায়, ‘বারো হাঁড়ি রাবরি বড় বাড়াবাড়ি’। আর এসব বাক্য বলতে দিয়ে করুণ দশা হয় বরুণের। নাজেহাল হন আলিয়া।

আগামী ছবি ‘কলঙ্ক’-এর প্রচারেই এই ইউটিউব চ্যানেলে হাজির হয়েছিলেন আলিয়া-বরুণ জুটি।

এর পর সঞ্চালক কিরণ তাদের পরীক্ষা আরেকটু সহজ করে দেন। আলিয়া ও বরুণকে দিয়ে বলিউড ও টালিউড মাতানো অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর বাংলা সিনেমার ডায়ালগ বলানোর চেষ্টা করেন কিরণ।

পরীক্ষা দিতে হয় কিরণকেও। তাকে দিয়ে হিন্দি ছবির ডায়ালগ বাংলায় বলিয়ে নেন তারা।

বলিউডের ইয়ুথ আইকন এখন বরুণ ধাওয়ান। করণ জোহরের ‘স্টুডেন্ট অব দ্য ইয়ার’ এ বলিউডে অভিষেকের পর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। সব ধরনের ছবিতেই অভিনয় দক্ষতার প্রমাণ দিয়ে তিনি জয় করেছেন অসংখ্য ভক্তের মন। লুকিয়ে রাখেননি নিজের প্রেম সম্পর্কও।

কিছুদিন আগেই ‘কফি উইথ করণ’- এ নাতাশা দালালের সঙ্গে নিজের প্রেমের সম্পর্কের কথা জানান বরুণ ধাওয়ান। কিন্তু অযাচিত কিছু কারণে এ প্রেমজীবনই সময়ে সময়ে বিপন্ন হওয়ার কথা এবার আরবাজ খানের একটি চ্যাট শো’ তে জানিয়েছেন বরুণ। বলেছেন, ফোনে এসে পড়া অযাচিত কিছু জিনিসের কারণে সমস্যা সৃষ্টি হয়। ফোন আজকাল যে কেউই ভয়ংকরভাবে অপব্যবহার করতে পারে।

আরবাজ খানের শো’ তে এক প্রশ্নের জবাবেই ফোনের প্রসঙ্গে কথাগুলো বলছিলেন বরুণ। তাকে প্রশ্ন করা হয়েছিল এক কোটি টাকা ভরা এটিএম কার্ড ও এক লক্ষ টাকার ফোন কোনটি বরুণ সহজেই কাউকে দিয়ে দেবেন? এর উত্তরেই বরুণ বলেন, এ মুহূর্তে তিনি এটিএম কার্ড দিয়ে দেবেন। কিন্তু ফোন নয়। কারণ, তার ফোনে আপত্তিকর কিছু জিনিস এসে পড়ে। এগুলোর মধ্যে রয়েছে নগ্ন বা অর্ধনগ্ন নারীদের ছবিও। যার জেরে তার প্রেমজীবন সমস্যাশঙ্কুল হয়ে ওঠে।

সূত্র:আমাদের সময়

মন্তব্য

মন্তব্য