কালীগঞ্জের কৃষক গরু কিনতে গিয়ে টাঙ্গাইলে নিখোঁজ

 

কালীগঞ্জ(গাজীপুর) প্রতিনিধি //

কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের রাথুরা গ্রামের আসাদ মোল্লা(৪৫) নামে এক কৃষক গরু কিনতে টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুরের কাইলতা বাজারে গিয়ে তিনদিন যাবত নিখোঁজ রয়েছে বলে সংবাদ পাওয়া গেছে। এ সংক্রান্ত বিষয়ে গতকাল সোমবার সকালে নিখোঁজের বড় ভাই মো. আরমান মোল্লা বাদী হয়ে মির্জাপুর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি(জিডি)করেছে বলে জানা যায়, জিডি নং ৬০৪। গত শনিবার সকালে গরু কেনার উদ্দেশ্যে ওই কৃষক মির্জাপুর যাওয়ার পর থেকে নিখোঁজ রয়েছে। নিখোঁজ কৃষকের বাড়ি গাজীপুরের কালীগঞ্জ উপজেলার নাগরী ইউনিয়নের রাথুরা গ্রামের মো. রহমত আলী মোল্লার ছেলে আসাদ মোল্লা।

পারিবারিক ও জিডি সূত্রে জানা যায়, গত শনিবার সকালে আসাদ মোল্লা একই গ্রামের সিরাজ উদ্দিন, নাজির শেখ, রাসেল ও সজিবসহ আরো কয়েকজন গরু ব্যবসায়ীর সাথে গরু কেনার উদ্দেশ্যে টাঙ্গাইল জেলার মির্জাপুরের কাইলতা বাজারের যান। ওই রাতে তার সহযোগী ব্যবসায়ী সিরাজ উদ্দিন, নাজির শেখ, রাসেল ও সজিব বাড়িতে আসলেও বাড়িতে ফিরে আসেনি গরু কিনতে যাওয়া কৃষক আসাদ মোল্লা।

নিখোঁজের স্ত্রী রহিমা বেগম জানান, তার স্বামী এক লাখ টাকা নিয়ে গরু কেনার জন্য এলাকার ব্যবসায়ীদের সাথে মির্জাপুরের কাইলতা বাজারে যায়। ওই দিন বিকাল ২টার দিকে তার স্বামীর ব্যবহৃত মোবাইল ফোনে একাধিক বার ফোন করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি। তার স্বামীর মোবাইল ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়। পরে বিষয়টি তার আত্মীয় স্বজনদের জানানো হয়। নিখোঁজের পরের দিন রোববার থেকে ওই এলাকার বিভিন্ন স্থানে মাইকিং ও খোঁজাঁখুজি করেও তার কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। কৃষক আসাদ মলম পাটির খপ্পরে পড়তে পারেন। নয়তো বা সন্ত্রাসীরা তাকে হত্যা করে তার সাথে থাকা গরু কেনার ১ লাখ টাকা ও মোবাইল ছিনিয়ে নিয়েছে বলে তার পরিবারের ধারণা। নিখোঁজের তিন দিন অতিবাহিত হলেও কৃষক আসাদের কোনো সন্ধান মিলেনি। এদিকে স্বামীকে কোথাও খুঁজে না পেয়ে খাওয়া-দাওয়া ছেড়ে পাগলপ্রায় হয়ে গেছে তার স্ত্রী। স্বামীর সন্ধানের আশায় মানুষের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন তিনি।

মন্তব্য

মন্তব্য