কর্মক্ষেত্র থেকে নারী যেন ঝরে না যায় : স্পিকার

পিউ জুই : কর্মক্ষেত্রে নারীদের প্রবেশ আগের চেয়ে সহজ হলেও সেখানে নারীদের ধরে রাখা এখনও ‘বড় চ্যালেঞ্জ’ বলে মন্তব্য করেছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।
গতকাল শুক্রবার আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘গণমাধ্যমে নারী-পুরুষ সমতা : বাস্তবতা করণীয়’ শীর্ষক এক আলোচনায় তিনি এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, নারীদের কর্মে আসা এখন অনেক সহজ হয়েছে, কিন্তু সেই কর্মক্ষেত্রে নারীদের ধরে রাখাটা এখনও বড় চ্যালেঞ্জ। প্রতিটি প্রতিষ্ঠানে নারীদের কর্মক্ষেত্রে কাজ করার সকল সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। সরকার নারীদের মাতৃত্বকালীন ছুটিসহ বহু ক্ষেত্রে অধিকার ও সুযোগ নিশ্চিত করে যাচ্ছে। এ আয়োজনের জন্য ডিআরইউকে ধন্যবাদ জানিয়ে স্পিকার বলেন, এখানে আসার আগে নারী দিবসের বেশ কয়েকটি অনুষ্ঠানে আমি যোগ দিয়েছি। ওইসব প্রোগ্রামে পুরুষদের উপস্থিতি আমাকে আশান্বিত করেছে। নারীদের অগ্রগতিতে পুরুষরা সহযোগিতা করছে। প্রথম নারী হিসেবে বাংলাদেশে সংসদ পরিচালনার দায়িত্ব পালন করে ইতিহাস গড়া শিরীন শারমিন নারী ক্ষমতায়নে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন উদ্যোগের কথাও অনুষ্ঠানে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নারীবান্ধব বিভিন্ন নীতি গ্রহণের ফলে অগ্রগতি হচ্ছে। আমি বিশ্বাস করি নারীদের এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে একদিকে যেমন সুযোগ থাকতে হবে, আরেক দিকে সক্ষমতার প্রয়োজন রয়েছে। সাম্প্রতিক সময়ে গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বাড়লেও সে অনুযায়ী নারী সাংবাদিক বাড়ছে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি। তিনি বলেন, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকতা আজকে নতুন ক্ষেত্র তৈরি করেছে। তারপরও গণমাধ্যমে সেই রকম নারী সাংবাদিক আমরা পাচ্ছি না। তার কারণ কী নারীরা আসছে না? নাকি তারা সুযোগ পাচ্ছে না? গবেষণা করে কারণগুলো বের করতে হবে। ডিআরইউকে সেই দায়িত্ব নিতে হবে। সীমাবদ্ধতা চিহ্নিত করে নারী সাংবাদিকদের অগ্রগতিতে কাজ করতে হবে।
সংসদের সংবাদ সংগ্রহের দায়িত্বে নিয়োজিতদের মধ্যেও নারী সাংবাদিকদের সংখ্যা তুলনামূলক কম বলে মন্তব্য করেন স্পিকার। সংসদে আরও বেশি নারী সাংবাদিক যেন কাজ করার সুযোগ পায় সেই ব্যবস্থা নিতে গণমাধ্যমের নীতি নির্ধারকদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
ডিআরইউ সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সংগঠনের সাবেক নারী বিষয়ক সম্পাদক শাহনাজ শারমীন। অন্যদের মধ্যে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক কবির আহমেদ খান, নারী বিষয়ক সম্পাদক সাজেদা ইসলাম পারুল, সাবেক নারী বিষয়ক সম্পাদক আইরিন নিয়াজী মান্না ও সাবেক নারী বিষয়ক সম্পাদক ঝর্ণা মনি বক্তব্য দেন।

মন্তব্য

মন্তব্য