হোমনায় জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে ২৪ ঘন্টার মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন


আইয়ুব আলী, হোমনা প্রতিনিধি //

প্রায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন প্রত্যন্ত একটি গ্রাম, এখানে নেই কোন প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিক্ষার্থীদের যেতে হয় পাশের গ্রামের স্কুলে। রাস্তা না থাকায় বর্ষা এলে তাও আবার বর্ষার পানির জন্য যাওয়া দুস্কর হয়ে পড়ে শিক্ষার্থীদের। এ খবর জানতে পেরে ২৪ ঘন্টারও কম সময়ের মধ্যে কুমিল্লা জেলা প্রশাসকের উদ্যোগে তাতুয়াকান্দি গ্রামে নতুন বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন করা হয় । গতকাল বুধবার বিকেলে কুমিল্লার হোমনা উপজেলার ভাষানিয়া ইউনিয়নের তাতুয়াকান্দি গ্রামে ৫ জন শিক্ষক ও ৬০ জন শিক্ষার্থী নিয়ে এই নতুন বিদ্যালয়ের উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর । ভাষানিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. কামরুল ইসলামের সঞ্চালনায় বক্তব্য দেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মো. মাইনুদ্দিন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন সিদ্দিকী, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আজগর আলী, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো.সাজেদুল ইসলাম, হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ মো. ফজলে রাব্বী, অভিভাবক মো. শাহীন ও ৩য় শ্রেণির ছাত্র মো. ইমন প্রমুখ।
জানা গেছে, বিদ্যালয় নির্মান করতে জেলা প্রশাসক নিজের ত্রাণ তহবিল থেকে সাত বান্ডেল টিন ও ঘর নির্মান করতে আনুষঙ্গিক মালামাল ক্রয় করতে নগদ টাকা প্রদান করেন । চার কক্ষের স্কুল ঘর নির্মান করে ৬০জন শিক্ষার্থী ও ৫ জন শিক্ষক দিয়ে “তাতুয়াকান্দি বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়” নামে একটি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় উদ্বোধন করেন। বিদ্যালয়ের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ক্রয়ের জন্য ২০হাজার টাকা নগদ প্রদান করেছেন জেলা প্রশাসক। গ্রামে বিদ্যালয় স্থাপন হওয়ায় খুশি শিক্ষার্থী , অভিভাবক ও গ্রামবাসী। পরে প্রথম শ্রেণি থেকে পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত মোট ৬০জন শিক্ষাথীদের মাঝে নতুন বই তুলে দেওয়া হয় ।
কুমিল্লা জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর জানান,‘‘এই গ্রামে বিদ্যালয় নেই জানতে পেরে আমি ইউএনও কে ত্রাণ তহবিলের টিন দিয়েছি স্কুল ঘর নির্মানের কথা বলি এবং ইউপি চেয়ারম্যানের সহযোগিতায় পাঁচজন শিক্ষক নিয়োগ দেই । ২০ হাজার টাকা নগদ দিয়েছি তাদের স্কুলের মালামাল ক্রয়ের জন্য।’’

মন্তব্য

মন্তব্য