টেকনাফের সাবেক সাংসদ বদির পরিবার জড়িত ইয়াবা ব্যবসায়

মোঃজাহেদুল ইসলাম(জাহেদ)//উখিয়া-টেকনাফের আলোচিত সাবেক সাংসদ সদস্য আব্দুর রহমান বদির ভাই পুলিশের মাধ্যমে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কাছে আত্মসমর্পণ করতে যাচ্ছে।আগামী ২১ জানুয়ারি কক্সবাজারে ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণ আনুষ্ঠানিকতার সম্ভাব্য তারিখ র্নিধারণ করা হয়েছে।সংশ্লিষ্ট স‚ত্রমতে, ইয়াবা ব্যবসায়ীদের আত্মসমর্পণের এ প্রক্রিয়াকে সফল করতে গত এক মাস ধরে মাঠে কাজ করছেন পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের বিশেষ একটি দল।ইতিমধ্যে অনেক ইয়াবা ব্যবসায়ীরা পুলিশের এই বিশেষ দলের হেফাজতে চলে এসেছেন।এরই অংশ হিসেবে আন্তসমর্রপণ উখিয়া-টেকনাফের আলোচিত সাবেক সাংসদ আব্দুরহমান বদিও ভাই এবং নিকট আন্তিয়।অপরদিকে তাদেও এই আত্মসমর্পণকে স্বাগত জানিয়ে ইয়াবা ব্যসায় বদির সম্পৃক্ততার প্রমান হিসেবে দেখছেন সছেতন মহল।বদি পরিবারের আত্মসমর্পণকারিরা হলেন,তালিকাভুক্ত শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী বদির ভাই আব্দুর শুক্কুর,শফিক রহমান,ফয়সাল রহমান,বদির ভাগিনা শাহেদ রহমান নিপু।এছাড়াও আত্মসমর্পণ করতে প্রস্তুত হয়েছে টেকনাফ উপজেলা চেয়ারম্যান জাফর আলমের ছেলে দিদারও।এবিষয়ে কক্সবাজারের জেলা পুলিশ সুপর এবিএম মাসুদ হোসেনের সাথে যোগাযোগ করা হলে ইয়াবা ব্যবসায়ীরা নিজেদের অপরাধ স্বীকার করে যদি আত্মসমর্পণ পূর্বক সুপথে ফিরতে চাইলে শর্ত সাপেক্ষে তাদেও সুযোগ দেয়া হবে বলে জানান।পুলিশের তথ্যমতে,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের তালিকায় কক্সবাজার জেলায় ১ হাজার ১৫১ জন ইয়াবা ব্যবসায়ী রয়েছেন।উক্ত তালিখায় রয়েছেন ৩৪ জন বর্তমান ও সাবেক জনপ্রতিনিধি।উল্লেখ্য গত বছরের মে মাস থেকে শুরু হওয়া মাদক বিরোধী অভিযানে কক্সবাজারে কথিত বন্দুকযুদ্ধে ৩৭ জন নিহতের মধ্যে ৩৪ জন টেকনাফের ইয়াবা ব্যবসায়ী।

মন্তব্য

মন্তব্য