গর্ভবতী গৃহবধুর আত্নহত্যা    

 

মোঃ জসিম উদ্দিন, আকবরশাহ্ প্রতিনিধি, চট্টগ্রাম :
চট্টগ্রামে কাট্টলী এলাকায় মরজিনা (১৯) নামের চার মাসের গর্ভবতী গৃহবধুর আত্নহত্যা। মরজিনা কুমিল্লা নাঙ্গলকোট তালতলা গ্রামের মোঃ জাকির হোসেনের মেয়ে ২০১৭ সালে মরজিনার সাথে মিরসরাই মধ্যম বাজার গ্রামের মোঃ আব্দুল মজিদের ২য় পুত্র মোঃআব্দুল আল নোমানের পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।নোমান দিন মজুরের কাজ করে। মরজিনার স্বামী এবং পিতা মাতা সহ চট্টগ্রামের কাট্টলী এলাকায় মতদালী নামক এক জমিদারের ঘরে ভাড়ায় থাকতেন। পরিবারে কোন প্রকার অশান্তি ছিলনা বলে জানান পার্শ্ববর্তী পরিবারের লোকজন। কিন্তু মরজিনার স্বামী নোমান জানান তার বউ ৪মাসের গর্ভবতী ছিল। মরজিনা কাজ করার জ্নব। যন্যবেশ কয়েকবার অনুমতি চায় স্বামী সহ তার পরিবারের কাছে।কিন্তু তার অসুস্থতার কথা চিন্তা করে তার স্বামী সহ তার পরিবার তাকে কাজ করার অনুমতি দেয়নাই।আজ সকাল৯টা আবার অনুমতি চায় কিন্তু প্রতিবারের মত আজও নিষেধ করে।মরজিনা নিরব হয়ে থাকেন
এবং তার স্বামী কাজে যাওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় জিনিস পএ গুছিয়ে দেন মরজিনার স্বামী নোমানের মোবাইলে টাকা না থাকায় সে মোবাইলে টাকালোড করতে দোকানে যায়।ফিরে এসে নোমান ২য় রোমের দরজা বন্ধ পাই এবং ডাকাডাকি করতে থাকেন সাডা না পেয়ে নোমান পিছনের জানালাদিয়ে মরজিনার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পায় এবংচিতকার করে এতে পার্শ্ববতী পরিবারের লোকজন দৌড়ে আসেন। এবং পুলিশ কে জাখককনায়এতে চট্রগ্রামের আকবরশাহ থানার এস,আই জাকির হোসেন ঘটনাস্থলে এসে দরজা ভেঙ্গে উর্দার করেন। লাশটি উর্দার করে   এস আই জাকির প্রথমিক তদন্তে আত্নহত্যা বলে জানান এবং লাশটি ময়না তদন্তের জন্য  পাঠান যদি হত্যার কোন আলামত পাওয়া যায় তদন্তে তাহলে তিনি অব্যহিত করবেন বলে জানিয়েছেন।

মন্তব্য

মন্তব্য