বান্দরবানে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রার্থী ০৯ জন

নয়ন চক্রবর্তী, বিশেষ প্রতিনিধি,বান্দরবান // ৪,৪৭৯.০৩ বর্গ কিলোমিটার আয়তনের পাহাড় কন্যা আখ্যায়িত বান্দরবানের মোট জনসংখ্যা ৪,০৪,০৯৩ জন। মোট ভোটার সংখ্যা ১,৭৪,৩৫৯ জন।একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে সারাদেশের ন্যায় বান্দরবানের প্রার্থীদেরও চলছে মনোনয়নপত্র সংগ্রহের ব্যস্ততা। বান্দরবান ৩০০ নং আসন হতে নির্বাচন করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পত্র সংগ্রহ করেন ৯ জন।যথাক্রমে, আধুনিক বান্দরবানের রূপকার অপ্রতিরোধ্য পরপর পাঁচবার নির্বাচিত এমপি ২০১৮ইং সালের সর্বশেষ পার্বত্যবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বাবু বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জনাব শফিকুর রহমান, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জনাব আব্দুর রহিম চৌঃ, বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা বাবু কাজল কান্তি দাস, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি বাবু প্রসন্ন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জনাব কাজী মুজিবুর রহমান, লামা উপজেলা আওয়ামী লীগের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক বাবু থুইনি মং মার্মা, থানচি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মংথোয়াই ম্যা (রনি)। মহিলা প্রার্থী হিসেবে সুচিত্রা তংচঙ্গ্যার নাম লোকমুখে শোনা গেলেও স্থানীয় জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা পাহাড় বার্তা কে ফোনে জানান তিনি কোন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেননি। ১০-১১-২০১৮ ইং রোজ শনিবার ঢাকা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় থেকে পার্বত্যবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং এমপি এর পক্ষে একান্ত সচিব সাদেক হোসেন চৌধুরী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।গত দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাবু প্রসন্ন কান্তি তঞ্চঙ্গ্যা বীর বাহাদুরের বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন কালে বিশাল ভোটে পরাজিত হন। দলের বিরুদ্ধে নির্বাচন করায় বান্দরবান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ থেকে বহিষ্কৃত করা হয় পক্ষান্তরে জনাব কাজি মুজিবুর রহমানকে ও দল বিরোধী বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে বহিষ্কৃত করা হয় তবে কাজী মুজিবুর রহমানকে কেন্দ্র থেকে বহিস্কৃত করা হয়নি বলে তিনি দাবি করেন। উপরোক্ত সকল প্রার্থীরা নিজ নিজ অবস্থানে যোগ্য বলে দাবি করেন তবে বঙ্গকন্যা দলীয় সভানেত্রী যাকে মনোনীত করবেন তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পক্ষে বান্দরবান ৩০০ নং আসন হতে নির্বাচনে অংশ নেবেন।
Attachments area

মন্তব্য

মন্তব্য