যশোরে নারী কেলেঙ্কারির সাথে জড়িত শিক্ষক, কলেজে বিরাজ করছে চরম অসন্তোষ।

 

যশোর,সংবাদদাতা // যশোরে ডা:আব্দুর রাজ্জাক মিউনিসিপ্যাল কলেজের শিক্ষক ও ছাএী আটকের ঘটনায় শিক্ষক ও ছাএীর নিয়ে তুমুল হৈচৈ দেখা দিয়েছে।ওই শিক্ষকে নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে যশোরে।ঘটনার সূএপাত ঘটে,২৬ অক্টোবর যশোর শহরের মাইকপট্টি এলাকায় একটি আবাসিক হোটেলে ঐ ছাএী ও শিক্ষককে আপওিকর অবস্থায় আটক করে যশোর কোতয়ালী মডেল থানার পুলিশ।পরে তিনি ছাড়া পেলেও তার এই ঘটনা দামা চাপা দেওয়ার জন্য তার পরিচয় গোপন রাখে।এতে তার শেষ রক্ষা হয়নী।ঐ শিক্ষকটির নাম আমিনুর রহমান মিলন।তিনি যশোর শহরের ডা: আব্দুর রাজ্জাক কলেজের ইংরেজী শিক্ষক।তার এই অসামাজিক কর্মকান্ডে যশোর শহরের শিক্ষক,অভিভাবকগন ছি:ছি:করছেন।তার এই অসামাজিক কর্মকান্ডে কলজের ভাবমূর্তি নষ্ট হয়েছে বলে বলছেন সচেতন নাগরিকরা।
কলেজ গর্ভনিং বডির সদস্য শেখ আব্দুর মতলেব বাবু জানান,আমরা ঘটনা শুনেছি।ইংরেজি শিক্ষক কলেজের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে।তার এই অসামাজিক কর্মকান্ড কলেজ কর্তপক্ষ তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবে।
কলেজের উপাধ্যক্ষ মনজুরুল ইসলামের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন,এই বিষয়ে কলেজের অধ্যক্ষ কাচে শুনতে বলেন।
কলেজের অধ্যক্ষ জনাব জে এম ইকবালের মুঠো ফোনে যোগাযোগ করলে তার ফোন বন্ধ থাকাই কোন মন্তব্য নেওয়া যায় নি।
এ দিকে ঘটনার পর থেকে ঐ শিক্ষক কলেজে আসছে।কলেজ কর্তপক্ষ দ্রুত কোন আইনী পদক্ষেপ না নেওয়াই অভিভাবকগন তীব্র ক্ষোপ প্রকাশ করছে।

মন্তব্য

মন্তব্য