প্রতারক কামাল-মাসুদ এর বিরুদ্ধে তিন জেলায় মামলা

সোনা পাইলসার, দুধ ওয়ালা, পত্রিকার বিট পিয়ন, মাদক সেবী ও ব্যবসায়ী ময়মনসিংহের কতিথ ফেইজবুক ও পোর্টাল এ সংবাদ প্রকাশের মাধ্যমে নিজেদের সাংবাদিক দাবী করে মামলার তদবির,
বিভিন্ন অফিসে দালালী, চাকুরী দেয়ার নামে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়ায় এই আন্ত: জেলা প্রতারক চক্রের নামে দেশে বিভিন্ন জেলায় একাধিক মামলা হয়েছে। এছাড়াও মেয়েদেরকে চাকুরি দেয়ার প্রলোভনে ময়মনসিংহ শহরের আসাদ হোটেলে মাসের পর মাস রুম ভাড়া রেখে ধর্ষন করার অভিযোগ রয়েছে। এব্যাপারেও বিভিন্ন থানায় জিডি হয়েছে।
জানাযায়, এই চক্রটি নিজেদেরকে সাংবাদিক দাবী করে প্রতারনা করে আসছে বলে অভিযোগ রয়েছে। ফেইজবুক সর্বস্ব প্রকাশনায় এরা নিজেদেরকে সাংবাদিক দাবী করে। কথিত অনলাইন পোর্টাল এদের প্রতারনার মূল সহায়ক শক্তি। এই চক্রের বিরুদ্ধে নেত্রকোনা সদর থানায় জিডি হয়েছে জনৈক মেয়েকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজে চাকুরী দেয়ার নামে ৩ লাখ ৬৫ হাজার টাকা নিয়ে প্রতারনা করেছে। জিডি নং ২১২।
এই চক্রটির নামে ঢাকায় দ্রæত বিচার আদালতে ১৩৮/১৮ মামলা রয়েছে। এতে মাসুদ ও কামাল আসামী বলে জানাগেছে। এই প্রতারক চক্রটিতে ৭/৮ জন সক্রিয় সদস্য। এরা ভুয়া প্রতিষ্ঠান সাজিয়ে, চাকুরি দেয়ার কথা বলে টাকা হাতিয়ে নিয়ে থাকে। কোন কোন সময় সংবাদ প্রকাশের নামেও টাকা নেয়।
পরে তা ফেইজবুকে প্রকাশ করে। এদের কেউ আবার অনলাইন পোর্টালেও সংবাদ প্রকাশ করে। চুয়াডাংগায় মামলা হয়েছে মামলা নং ২২৯/১৮। পিরোজপুরে গাড়ী চুরির মামলা হয়েছে এদের নামে। মামলা নং ১৭৯/১৮।
ময়মনসিংহের তথা কতিথ কামাল ও মাসুদসহ আরও ৪ জন মামলার আসামী । এরা আন্ত: জেলা প্রতারক চক্র। আসাদ হোটেলে এদের রুম রয়েছে এই চক্রে, রয়েছে সোনা পাইলসার, দুধ ওয়ালা, পত্রিকার বিট পিয়ন, মাদক সেবী ও ব্যবসায়ী।

মন্তব্য

মন্তব্য