প্রধানমন্ত্রী নিহত দিয়া ও করিমের পরিবারকে ২০ লক্ষ টাকা করে অনুদান দেওয়ায় – দৈনিক দিন প্রতিদিন পত্রিকার উপদেষ্টার মন্ডলীর সভাপতি‘র অভিন্দন

নিজস্ব প্রতিবেদক:  বৃহস্পতিবার (০২/০৮/২০১৮ইং) দুপুরে নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে সাক্ষাৎ করতে গেলে তিনি তাদের সান্ত্বনা দেন বলে তার প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, “মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে দেখা করেছেন কুর্মিটোলায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবার। প্রধানমন্ত্রী শোকাহত দুই পরিবারকে সান্ত্বনা ও প্রতি পরিবারকে ২০ লক্ষ টাকার পারিবারিক সঞ্চয়পত্র অনুদান দিয়েছেন।”

দিয়ার বাবা জাহাঙ্গীর ফকির সাংবাদিকদের বলেন বলেন, “প্রধানমন্ত্রী আমাদের সান্ত্বনা দিয়েছেন; আশ্বাস দিয়ে বলেছেন, যারা এর সঙ্গে জড়িত তাদের কঠোর শাস্তি হবে।”

পরে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে জাহাঙ্গীর বলেন, “বাবারা তোমরা যারা কষ্ট করছো, তোমরা ঘরে ফিরে যাও।”

২৯ জুলাই ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে বাসের জন্য অপেক্ষার সময় জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের নিচে চাপা পড়েছিলেন ঢাকার রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের দিয়া ও করিম।এই দুই শিক্ষার্থী নিহত হওয়ার পর থেকে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনে নামে শিক্ষার্থীরা। গত দুই দিনে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়তে শুরু করেছে ঢাকাসহ অনান্য শহরেও।

এদিকে গত কয়েক দিনের বিক্ষোভের মধ্যে গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় পরিবহন মালিকরাও বৃহস্পতিবার সকাল থেকে বাস ছাড়ছেন না। ফলে চরম ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ।
দুই শিক্ষার্থীর পরিবারকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আপনাদের সান্ত্বনা দেওয়ার ভাষা আমার নেই। আপনাদের কষ্টটা আমি বুঝি।”
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, মুখ্য সচিব নজিবুর রহমান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব সোহরাব হোসাইন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর এই অনুদানকে কেন্দ্র করে দৈনিক দিন প্রতিদিনের পত্রিকার উপদেষ্টা মন্ডলীর  সভাপতি জনাব হারুন অর রশিদ নিহত ছাত্রছাত্রীদের  অবিভাবকদের অনুদান ও শান্তনা দেওয়ায় তাকে (প্রধানমন্ত্রীকে) অভিন্দন ও ধন্যবাদ জানান।

প্রধানমন্ত্রীর  সময়োপযোগী সিন্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘‘ গত কয়েক দিন ধরে ঢাকার রাজধানীর প্রধান প্রধান সড়ক সহ বাংলাদেশের বিভিন্ন প্রান্তে যেভাবে সাধারন ছাত্রছাত্রীরা  আন্দোলন করতেছিলে এতে বাংলাদেশের সাধারণ জনগন ভোগান্তিতে পরে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এই বিচক্ষণ ও সময়োপযোগী সিদ্ধান্তে দেশের সাধারন জনগন শান্তির আশ্বাস পেয়েছে। তিনি অবশ্যই ধন্যবাদ ও অভিন্দন পাওয়ার যোগ্য ’।

মন্তব্য

মন্তব্য