শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্কুল প্রতিষ্ঠা করায়, জনপ্রশাসন পদক পেলেন শ্রীপুরের ইউএনও

সাইফুল আলম সুমন,নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
“নবধারা শ্রবণ ও দৃষ্টি প্রতিবন্ধী স্কুল” স্থাপনরে স্বীকৃতি স্বরূপ জনসেবায় অসামান্য অবদানের জন্য জাতীয় পর্যায়ে ব্যক্তিগত শ্রেণীতে জনপ্রশাসন পদক-২০১৮ পেলেন শ্রীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রেহেনা আকতার। গতকাল সোমবার (২৩জুলাই) সকাল ১০.০০ঘটিকায় রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ৩টি প্রতিষ্ঠানসহ ৩৯জনকে অসামান্য অবদানের জন্য জনপ্রশাসন পদক তুলে দেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা।

শ্রীপুরে নবধারা শ্রবণ ও দৃষ্টিপ্রতিবন্ধি স্কুল স্থাপনের স্বীকৃতি স্বরুপ সম্প্রতি জনপ্রশাসন পদক ২০১৮ এর জন্য ব্যক্তিগত ক্যাটাগরিতে তাঁকে মনোনীত করা হয়। এর আগে তিনি গাজীপুর জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিলেন। এছাড়াও জনসেবায় বিশেষ অবদানের জন্য জনসেবা উদ্ভাবনী পদকও জমা পড়েছিল তাঁর ঝুড়িতে। বিসিএস ২৭তম ব্যাচের এই কর্মকর্তা গাজীপুরের শ্রীপুরে যোগদান করেন ২০১৭ সালের মার্চ মাসে। যোগদানের পরই তাঁর নানামুখী ভূমিকা সাধারণ লোকজনের মধ্যে প্রশংসার স্বাক্ষর রাখে। সমস্ত উপজেলায় একযোগে দুই লক্ষ গাছের চারা রোপন করে তিনি আলোচনায় আসেন। বাল্যবিয়ে, নারী ও শিশু নির্যাতন রোধ,দারিদ্র বিমোচন,সরকারের সাফল্যনিয়ে উন্নয়ণ মেলা, ভিক্ষুক পূনর্বাসন, ভেজাল প্রতিরোধ ও মাদক নির্মুলের সফলতা, ও গ্রামীণ পর্যায়ে স্বাস্থ্যসেবায় পরিবহনের ব্যবস্থা তাঁর নিপুণ হাতের ছোঁয়ার ফসল। রেহেনা আকতার নরসিংদী জেলার শিবপুর উপজেলায় জন্মগ্রহণ করেন । তিনি এক পুত্র সন্তানের জননী।

ইউএনও রেহেনা আকতার জানান, প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে এই পুরষ্কার গ্রহণ করা সত্যিই ভাগ্যের ব্যাপার। অসাধারণ ভালো লাগছে এমন পুরষ্কার যে কারও জন্যই আনন্দের। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা, মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ও গাজীপুরের জেলা প্রশাসক ড. দেওয়ান মুহাম্মদ হুমায়ূন কবীর এবং উপজেলার সর্বস্তরের সকল জনসাধারণেক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়ে সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।

মন্তব্য

মন্তব্য