ময়মনসিংহে এই প্রথম কোন ওসি বিরুদ্ধে বদলী প্রত্যাহারে দাবীতে মানববন্ধন

মোঃ রুবেল আকন্দ:- ময়মনসিংহ জেলার এই প্রথম ডিবি’র ওসি আশিকুর রহমানকে বদলীর প্রত্যাহারের দাবিতে ছাত্র-ছাত্রী, মুক্তিযোদ্ধা ও সুশীল সমাজের লোকজন ডিআইজি অফিসের সামনে মানববন্ধন করেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর শেখ হাসিনা,বিরোধী দলীয় নেত্রী রওশন এরশাদ ও মাননীয় র্ধম মন্ত্রী মতিউর রহমান হস্তক্ষেপ চেয়েছেন মানববন্ধনে আসা সাধারণ মানুষ ও ছাত্র-ছাত্রীরা। আন্ডার ওয়াল্ডের ক্রিকেট জুয়ারীরা যেমন খেলার জয় পরাজয় পরিবর্তন করতে পারে তেমিন আন্ডার ওয়াল্ডের মাফিয়া চক্ররাও রাষ্ট্রের ক্ষতি ও অসৎ ব্যক্তিদের দ্বারা প্রশাসনিক ব্যবস্থাকেও তছনছ করে দিতে পারে। এরই জলন্ত উদাহরণ রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ ক্ষমতাধর ব্যক্তির ঘোষণায় মাদক নির্মূলে সারা দেশে পুলিশ প্রশাসনসহ বিভিন্ন প্রশাসনকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে নির্দেশ দেয়া যে সকল পুলিশ অফিসার সক্রিয় ভূমিকা পালন করে মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার ও আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করায় তারাই বেশি সমালোচিত হচ্ছেন। এমন ভাল কাজ করাই তাদের বদলি কারন হয়ে উঠছে। কত টুকু পুলিশ স্বাধীন ভাবে কাজ করবে সে প্রশ্ন টুকু থেকে যায়? সাধারণ মানুষ মনে করেন পুলিশকে রাজনৈতিক ভাবে চাপ মুক্ত করতে হবে। রাজনৈতিক চাপ মুক্ত করলে পুলিশ স্বাধীন ভাবে কাজ করতে পারবে। আর রাজনৈতিক চাপ থাকলে এভাবে আশিকুর রহমানের মত এক জেলা থেকে অন্য জেলায় বদলি করাতে হবে। পুলিশে এধরনের ঘটনা ময়মনসিংহে আর ঘটে নাই। এতে প্রমানিত হয় ময়মনসিংহে আর কোন যোগ্য অফিসার নেই আর থাকলেও আশিকুর রহমানের মত নয়। এই অফিসার যোগদানের মাত্র ৯ মাসের শেষ দেড়মাসে ময়মনসিংহ নগরীসহ জেলার ৩০ বৎসরের মাদক রাজ্যপাট তচনছ করে দিয়েছে। জনতা তা স্বচোখে দেখেছে উপলব্ধি করছে। পুলিশ প্রশাসনের এটা ভেবে দেখার বিষয়। একজন পুলিশ অফিসার যিনি ময়মনসিংহে বদলি হয়ে আসেন ৯ মাসের মত হবে, তার শেষ এক-দেড় মাসে ময়মনসিংহকে মাদকমুক্ত করতে তার অবদান সাধারন মানুষ থেকে শুরু করে সব মহলে প্রশংসনীয় ময়মনসিংহ যখন মাদক মুক্ত হচ্ছে ঠিক তখন ডিবি ওসির বদলী রহস্য জনক। গতকাল থেকে ময়মনসিংহ বাসীর উৎকন্ঠা ও সামাজিক যোগাযোগ ফেইসবুক মাধ্যমে বদলীর প্রত্যাহারের দাবি জানানো হচ্ছে।

মন্তব্য

মন্তব্য