কালীগঞ্জ পৌরবাসী জলাবদ্ধতায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে

মো. ইব্রাহীম খন্দকার,কালীগঞ্জ ,গাজীপুর:  কালীগঞ্জ পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ড তুমলিয়া এলাকায় কয়েকটি পরিবারের ৫০/৬০ জন বাসিন্দা জলাবদ্ধতায় মানবেতর জীবনযাপন করছে। পানি নিষ্কাষনের ব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই বাড়ির রাস্তা ও উঠান পানিতে ডুবে যায়। শিশু, বয়োবৃদ্ধসহ ওই এলাকার কয়েকটি পরিবার প্রতিনিয়ত জলাবদ্ধতায় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পানি বের হওয়ার কোনো ড্র্রেনিস ব্যবস্থা না থাকায় বৃষ্টির পানি স্থায়ীভাবে জমে থাকে। এতে পানি দিয়ে হেঁটে ওই এলাকাবাসীদের প্রতিদিন চলাচল করতে হচ্ছে। স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রতিদিন দুষিত পানি দিয়ে হেঁটে তাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আসাÑযাওয়া করছে। ওই সব পরিবারের রান্না ঘর ও টয়লেট পানিতে ডুবে যাওয়ায় পানি দুষিত হয়ে দুর্গন্ধ ছড়ায় এবং পানিবাহী রোগ বিরাজ করছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন।
কালীগঞ্জ পৌরসভার কাপাসিয়া মোড়ের দক্ষিণ পাশে পাঠানবাড়ী, শেখ বাড়িসহ আশেপাশের লোকজন দীর্ঘদিন যাবত জলাবদ্ধতায় জীবনযাপন করলেও তার প্রতিকারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এতে ওই এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে। ওই এলাকার বাসিন্দা মজাহার পাঠান বলেন, দীর্ঘদিন ধরে জলাবদ্ধতায় থাকতে হচ্ছে। একটু বৃষ্টি হলে চলার রাস্তায় ও উঠানে, বাড়িঘরের আশেপাশে পানি জমে থাকে। আবার রোদ হলে দুষিত পানির দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ে। পানি দিয়ে চলাচলের ফলে জ¦র,সর্দি ও পানিবাহী রোগে অনেকে আক্রান্ত হচ্ছে। নাগরিকদের পৌরসভায় যেই সুযোগ সুবিধা দেবার কথা তা থেকে এলাকাবাসী বঞ্চিত হচ্ছে। তারা শুধু ট্যাক্রা নিচ্ছে।
এ সংক্রান্ত বিষয়ে স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর ইব্রাহীম মোল্লা (চান্দু মোল্লা)র সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে শুরু করে পৌরসভা হওয়ার পরও ড্রেনিস ব্যবস্থার জন্য চেষ্টা করছি । টাকার অভাবে ব্যবস্থা নিতে বিলম্ব হচ্ছে। তাছাড়া কারো জায়গা দিয়ে পানি বের হবে তা তারা দিতে চায় না।

 

মন্তব্য

মন্তব্য