টার্কি মুরগি পালন করে সাবলম্বি হোমনায় আদর্শ খামারি নাসির উদ্দিন

আইয়ুব আলী,কুমিল্লা উঃ জেলা প্রতিনিধি: টার্কি মুরগি পালন করে সফলতা পেয়েছেন কুমিল্লার হোমনা উপজেলার দড়িচর গ্রামের আদর্শ খামারি নাসির উদ্দিন ও তার সহধর্মিনী আমেনা বেগম। ২০১৭ সালের জানুয়ারী মাসে মাত্র ৩০ টি টার্কি বাচ্চা নিয়ে নাদিম এগ্রো টার্কি ফার্ম নামে এই খামার শুরু করলেও বর্তমানে এখন ৫ থেকে ৬ শতাধিক টার্কি মুরগি রয়েছে । আর টার্কি মুরগি বিক্রি করে আর্থিক ভাবে লাভবাহ হচ্ছেন তার পরিবার । তাদের টার্কি মুরগির লাভজনক হওয়ায় আশে পাশের অনেক বেকার যুবক টার্কি পালনে উৎসাহ বোধ করেছেন ।
নাদিম এগ্রো টার্কি ফার্মের মালিক মো. নাসির উদ্দিন বলেন, আমি র্দীঘ দিন প্রবাসে ছিলাম । দেশে ফিরে প্রথমে জমির ব্যবসা শুরু করলে ও তা সুবিধা করতে না পেরে আবার গরু পালন শুরু করি । কিন্তু তা দিয়ে পরিবার খরচ চালানো যায় অসম্ভব হয়ে পড়েছে । বিদেশ থেকে এসে এক পর্যায়ে সমাজের অবহেলিত হয়ে পড়ছিলাম । পরে উপজেলা প্রানি সম্পদ অফিসের সাথে যোগাযোগ করে টার্কি মুরগি পালনের সিদ্ধান্ত গ্রহন করি । টার্কি মুরগি পালন করে আমার ভাগ্যের চাকা ঘুরে দাড়িঁয়েছে । সঠিক পরিচর্যার মাধ্যমে দিন দিন বাড়তে থাকে টার্কি মুরগির সংখ্যা । বর্তমানে আমার খামারে ৬ শতাধিক টার্কি মুরগি রয়েছে । তিনি আরো বলেন টার্কি খাবারের জন্য কোনে সমস্যা হয় না । দানাদার খাবারের পাশাপাশি সবুজ ঘাস ,লতাপাতা পোকামাকড়, এমনকি সবজি খেতেও পছন্দ করে । টার্কি মুরগির রোগ বালাই অত্যন্ত কম । এদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা অন্যান্য মুরগির চেয়ে ও বেশি । একটি টার্কি মুরগি বছরে ১৮০ থেকে ২০০ টি ডিম পাড়ে । ডিম থেকে বাচ্চা হওয়ার ৬ মাসের মধ্যে টার্কি আবার ডিম দিতে শুরু করে । হাচারি মেশিনে ৫দিন পর পর ১০০ বাচ্চা বের হয় । এক মাস বয়সী টার্কি মুরগির বাচ্চা বিক্রি হয় ৭- ৮ শত টাকা এবং একটি ডিমের দাম প্রায় ১৫০ টাকা । একটি টার্কি মুরগি ওজন ৬ মাসের মধ্যে ৮-১০ কেজি এবং বছরে ১৮-২০ কেজি হয়ে থাকে । প্রতি মাসে খামার থেকে টার্কি মুরগি ও ডিমসহ বিক্রি করে প্রায় এক লক্ষ টাকা আয় হচ্ছে । তবে আমি মনে করি এদেশের বেকার যুবকরা টার্কি মুরগি পালন করে তাদের বেকারত্ব দূর করে সফলতা আনা সম্ভব । এজন্য উপজেলা পর্যায়ে প্রশিক্ষন ও কর্মশালার মাধ্যমে বেকার যুবকদের উদ্বুদ্ধ করা যেতে পারে ।
উপজেলা প্রানি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ সৈয়দ মো.নজরুল ইসলাম বলেন ,টার্কি মুরগি খামার বর্তমানে একটি সফল ব্যবসা । এ মুরগি পালন করে লাভজনক হওয়া সম্ভব । নাদিম এগ্রো টার্কি ফার্ম এর মালিকের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ আছে । শুরু থেকেই পরামর্শ দিয়ে আসছি এবং যে কোন সমস্যা হলে সর্বাত্বক ভাবে সহযোগিতা করছি ।

মন্তব্য

মন্তব্য