ঈদের সকালে মিষ্টি

সামনেই ঈদুল ফিতর। এটি সারা বিশ্বের মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব। আনন্দ -উদ্দীপনার মধ্য সারা বিশ্বে এই দিনটি উৎযাপিত হয়। সেই সঙ্গে থাকে নানা ধরনের সুস্বাদু খাবারের মিশ্রণ।

মিষ্টি ঈদের দিনের অন্যতম অপরিহার্য খাবার। বিশেষ কর এই দিনে সেমাই খেতে সবাই পছন্দ করেন।এছাড়া বাড়িতে বাড়িতে জর্দা, ফিরনিসহ আরও অনেক ধরনের মিষ্টি খাবার তৈরি হয়।সাধারণত ঈদের সকালে নামাজের পর প্রথম খাবার হিসেবে খাওয়া হয় সেমাই। জেনে নিন সেমাই ও জর্দা রান্নার রেসিপি।

লাচ্ছা সেমাই : লাচ্ছা সেমাই ঈদের দিনের অন্যতম পছন্দের খাবার।

উপকরণ : তরল দুধ ২ লিটার, লাচ্ছা সেমাই ১ প্যাকেট ,গুঁড়া দুধ ৫ টেবিল চামচ, চিনি স্বাদ মতো,এলাচ- দারুচিনি কয়েকটি, কিশমিশ এক মুঠো, বাদাম কুচি কয়েকটা, ঘি দুই টেবিল চামচ

প্রস্তুত প্রণালি: দুই লিটার দুধ জ্বাল দিয়ে সোয়া এক লিটার করে ফেলুন। এতে এলাচ দারুচিনি দিয়ে জ্বাল দিন। উপরে ঘন সর জমলে,সেটাকে তুলে রাখুন আলাদা করে।

এবার দুধে চিনি মেশান। খানিকটা দুধ তুলে নিয়ে সেই দুধের মধ্যে পাউডার মিল্ক গুলিয়ে নিন। গুলানো গুঁড়া দুধ অন্য দুধের সাথে মিশিয়ে দিন।

এবার একটি প্যানে ঘি গরম করুন। ঘিয়ের মাঝে লাচ্ছা সেমাই দিয়ে হালকা আঁচে ভেজে নিন। বাদাম ও কিসমিসও দিয়ে দিন। সেমাইটা হালকা লাল হলেই নামিয়ে ফেলুন।

এবার গরম দুধ সেমাইয়ের ওপরে ছড়িয়ে দিন। ঘন সরটাও এতে দিয়ে দিন। এখন কিছু বাদাম কুচি ছিটিয়ে দিন। ব্যস তৈরি হয়ে গেল মজাদার লাচ্ছা সেমাই।

জর্দা সেমাই : ঈদের দিনের আরেকটি পছন্দের খাবার হলো জর্দা সেমাই।

উপকরণ : সেমাই আধা প্যাকেট, চিনি স্বাদমতো, ঘি ৩ থেকে ৪ টেবিল চামচ,পানি ১ থেকে দেড় কাপ, এলাচ ২ থেকে ৩ টি ,দারুচিনি ১ টি, তেজপাতা ১ টি, বাদাম ও কিসমিস পরিমানমতো, জর্দা রঙ সামান্য

প্রস্তুত প্রনালীঃ সেমাই গুলোকে ভেঙে টুকরো করে নিতে হবে ।একটি নন স্টিক প্যানে মাঝারি আঁচে ঘি দিয়ে এলাচ, দারুচিনি, তেজপাতা ও কিশমিশ দিয়ে সামান্য ভেজে নিন। এরপর তাতে সেমাইগুলো দিয়ে ভাজতে হবে। সেমাই বাদামি হয়ে আসলে এক কাপ পানি দিন। এখন সামান্য পানিতে জর্দা রঙ গুলিয়ে সেমাইয়ে মিশিয়ে দিন। এখন চিনি দিয়ে নেড়েচেড়ে হালকা আঁচে কিছুক্ষন রাখুন। ৩ থেকে ৪ মিনিট পর ঢাকনা খুলে তাতে বাদাম ছড়িয়ে দিন। সেমাইয়ের পানি শুকিয়ে গেলে এবং সেমাই সেদ্ধ হয়ে আসল কিছুক্ষণ দমে রাখুন। রান্না শেষে সামান্য ঘি দিয়ে নামিয়ে ফেলুন।

জর্দা : ঈদের দিন বাড়িতে তৈরি জর্দাও অনেকের পছন্দের একটি খাবার।

উপকরণ : পোলাওয়ের চাল ২ কাপ, পানি দেড় কাপ, চিনি স্বাদমতো, ঘি ৪ টেবিল চামচ,দারুচিনি,লবঙ্গ, এলাচ কয়েকটি করে,জর্দার রঙ সমান্য, চাল সিদ্ধ করার পানি পরিমাণ মতো, বাদাম কুচি ও কিশমিশ কয়েকটা

প্রস্তুত প্রণালী : প্রথমে চাল ধুয়ে আধ ঘন্টা ভিজিয়ে রাখুন। এরপর এতে পরিমাণ মতো মত পানি, দুটি তেজপাতা, সামান্য লবণ, ১চা চামচ তেল ও জর্দার রঙ দিয়ে চুলায় সিদ্ধ করুন।খেয়াল রাখতে হবে যেন চাল বেশী সিদ্ধ বা শক্ত না হয় । প্রায় সিদ্ধ হয়ে এলে পানি ভালোভাবে ঝরিয়ে চালটা ট্রেতে বা বড় প্লেটে ছড়িয়ে দিন। এখন একটি প্যানে ঘি গরম করে মাঝারি আঁচে গরম মশলাগুলো ভাজুন। ফুটে উঠলে কিশমিশ, বাদাম, চিনি দিন। এখন এতে সিদ্ধ চাল দিয়ে নাড়তে থাকুন।অল্প আঁচে ২০ মিনিট রান্না করুন। চাল একদম সিদ্ধ হয়ে গেলে নামিয়ে বাটিতে নিয়ে কিশমিশ, পেস্তা-বাদাম কুচি ও ছোট লাল-সাদা মিষ্টি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

মন্তব্য

মন্তব্য