বান্দরবানে টানা ভারি বর্ষনে বান্দরবান-রাঙ্গামাটি সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

রাসেল তালুকদার,বান্দরবান প্রতিনিধিঃগত কয়েকদিনের বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিন্মচাপের প্রভাবে গত দুইদিনের টানা বর্ষনের কারনে বান্দরবান বালাঘাটা পুলপাড়াস্থ (পাইসরহ্ খাল) ব্রীজ পানীর নিচে তলিয়ে যাওয়ায়, বান্দরবান সাথে রাঙামাটির সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে।
আজ সোমবার সকালে বান্দরবানের বালাঘাটা রাঙ্গামাটি সড়কে ব্রীজ পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় বান্দরবানের সাথে রাঙামাটির সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়েছে। ফলে উভয় পাশে আটকা পড়ে যানবাহনসহ যাত্রীরা। জেলার শঙ্খনদী ও মাতামুহুরী নদীর পানি বাড়ার কারনে জেলার লামা উপজেলার বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হওয়ার পাশাপাশি নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত হওয়ার সম্ভবনা দেখা দিয়েছে।
পাহাড়ী ঢলে বান্দরবান সদরের আর্মী পাড়া, মেম্বার পাড়া, শেরে বাংলা নগর, মধ্যম পাড়া, উজানী পাড়া, ক্যউচিংঘাটা, ভরাখালীসহ শহরের ব্যাপক এলাকা প্লাবিত হয়েছে। এ ছাড়াও লামা, আলীকদম ও নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলার অধিকাংশ এলাকা পাহাড়ী ঢলে তলিয়ে গেছে। সেখানকার লোকজন নৌকায় চড়ে চলাফেরা করছে। এতে শত, শত ঘর-বাড়ী, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ফসলী জমি বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে।
প্লাবিত এলাকা গুলোর মধ্যে রয়েছে লামা পৌরসভার নয়া পাড়া,উপজেলা পরিষদের আবাসিক এলাকা সমুহ, লামা বাজারের একাংশ, নুনারবিল, লামা বাস স্ট্যান্ড ,লামা থানা এলাকা,লাইনঝিরি ,ছাগলখাইয়া, ফকির পাড়া, কলিঙ্গাবিল, হাসপাতাল পাড়া, শিলেরতুয়া ও চেয়ারম্যান পাড়া। এছাড়া পৌরএলাকার হলিচাইল্ড পাবলিক স্কুলসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানও সরকারি, বেসরকারি দপ্তর সমুহ পাহাড়ী ঢলের পানিতে প্লাবিত হয়ে পড়েছে।
এদিকে প্রবল বর্ষণ অব্যহত থাকায় খরশ্রোতা শঙ্খনদী ও মাতামুহুরী নদীর পানি বিপদ সীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকায় পাহাড়ের পাদদেশে বসবাসরত পরিবার গুলোকে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে যাওয়ার জন্য বান্দরবান জেরা শ্রাসনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে সর্তক করা হচ্ছে।

মন্তব্য

মন্তব্য