একই দিনে আ’লী‌গ ও পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থীর ইফতার নি‌য়ে তৃণমূ‌লে ক্ষোভ

দে‌বিদ্বার (কু‌মিল্লা) প্র‌তি‌নি‌ধি : কু‌মিল্লার দে‌বিদ্বা‌রে উপ‌জেলা আওয়ামী লীগ ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হি‌সে‌বে নির্বাচন ক‌রে পরা‌জিত হওয়া ক‌থিত আ’লীগ নেতা রোশন আলী মাস্টার একই দি‌নে আলাদা ইফতা‌র মাহ‌ফিল আ‌য়োজন করা নি‌য়ে তৃণমূল কর্মী‌দের ম‌ধ্যে ক্ষোভ বিরাজ কর‌ছে।

আওয়ামী লীগের দলীয় সূ‌ত্রে জানা যায়, আগামী শ‌নিবার (৯ জুন, ২৩ রমজান) দে‌বিদ্বার উপ‌জেলা আওয়ামী লী‌গের উ‌দ্যো‌গে ইফতার মাহ‌ফি‌লের আ‌য়োজন করা হয়। ইফতার সফল করার ল‌ক্ষ্যে দাওয়াত কার্ড ছাপা‌নো থে‌কে শুরু ক‌রে যাবতীয় কার্যক্রম উপ‌জেলা সভাপ‌তি ও সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সংসদ সদস্য রাজী মোহাম্মদ ফখরুলসহ সর্বস্ত‌রের নেতাকর্মী‌দের‌কে নি‌য়ে পরিচালনা কর‌ছি‌লেন। এরই অংশ হি‌সে‌বে গত শনিবার (২ জুন) স্থানীয় এক‌টি হো‌টে‌লে উপ‌জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও গত মঙ্গলবার (৫ জুন) সুজাত আলী সরকা‌রি ক‌লেজ মিলনায়ত‌নে উপ‌জেলা ছাত্রলীগ প্রস্তু‌তি সভা ক‌রে।

এ‌দি‌কে উপ‌জেলা আওয়ামী লী‌গের ইফতার মাহ‌ফিল‌কে প্রশ্ন‌বিদ্ধ কর‌তে একই দি‌নে (শ‌নিবার, ৯জুন) নিজ বা‌ড়ি পদ্ম‌কো‌টে ইফতা‌রের আ‌য়োজন ক‌রে ২০১৪ সা‌লের নির্বাচ‌নে স্বতন্ত্র প্রার্থী হি‌সে‌বে নির্বাচন ক‌রে হে‌রে যাওয়া রোশন আলী। তার এ একই দি‌নে ইফতা‌রের আ‌য়োজন নি‌য়ে তৃণমূল নেতাকর্মী‌দের ম‌ধ্যে ক্ষোভ বিরাজ কর‌ছে। সামা‌জিক যোগা‌যোগ মাধ্যম ফেসবুকসহ সর্বত্র চল‌ছে সমা‌লোচনা ঝড়।

‌রোশন আলী মাষ্টারের বাড়িতে ইফতার নি‌য়ে তার অনুসারী সু‌জিত পোদ্দার ফেসবু‌কে স্ট্যাটাস দি‌লে এতে সক‌লের ক্ষো‌ভের ব‌হিঃপ্রকাশ স্বরুপ বিরুপ মন্তব্য লক্ষ্য করা যায়। দে‌বিদ্বার পৌর স্বেচ্ছা‌সেবক লী‌গের সাংগঠনিক সম্পাকদ সম্রাট হাসান অন্তর মন্তব্য ক‌রেন, ‘কাকা তাহলে ওনারা কি আওয়ামী লীগ করে না। কার্ডে তো কোন ব্যক্তির নাম নেই। শুধু থানা আওয়ামী লীগ এর সভাপতি+সেক্রেটারির সাইন রয়েছে। তাহলে যারা সাইন দিয়েছে তারা কি অন্য দলের?? আমরা ও নৌকার বাহিরে নই। হয়ত হতে পারে আপনারা আমাদের সিনিয়র, আমারা ছোট মানুষ অাপনাদের চাইতে একটু কম বুঝি, তাই বলে কি সব কিছুই বুঝি না কাকা। রাগ নিবেন না।’

প্রণব দাস নামে আরেক নেতা মন্তব্য করেন, ‘কাকা বিষয় টা বুঝলাম না। দেবিদ্বার রেয়াজ উদ্দিন স্কুলের মাঠে আগামী ৯ তারিখঃ দেবিদ্বার উপজেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠন ইফতার পার্টি হবে। আবার আপনি বলছেন রৌশন আলী মাষ্টার এর বাড়িতে ইফতার পার্টি!’

এ‌বিষ‌য়ে জান‌তে উপ‌জেলা আওয়ামী লীগ সভাপ‌তি আলহাজ্ব জয়নাল আ‌বে‌দিনের সা‌থে মু‌ঠো‌ফো‌নে যোগা‌যোগ করা হ‌লে তি‌নি জানান, ওইদিন আমাদের পুরো উপজেলার নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের জনগণের জন্য ইফতারের আয়োজন করেছি। আমাদের অনুষ্ঠানে ১০হাজার লোকের আয়োজন থাকলেও এরচেয়ে বেশি সংখ্যক লোক উপস্থিত হবে। ওনি একটা গ্রামের নেতা, ওনি ওনার গ্রামে ইফতারের আয়োজন করেছেন। একটা গ্রামের ইফতার উপজেলার ইফতারে প্রভাব ফেলবে না।

উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মনিরুজ্জামান মাস্টার বলেন, ‘আমরা থানা আওয়ামী লীগ ৯ তারিখ ইফতারের আয়োজন করেছি। এটা থানা আওয়ামী লীগের দলীয় সিদ্ধান্ত। ওইদিন আওয়ামী লীগ নেতা রোশন আলী ইফতারের আয়োজন করেছে শুনেছি। এটা ওনার ব্যক্তিগত ব্যাপার।’

একই দিনে দু’টি ইফতার, তাও আবার উপজেলা আ’লীগের কর্মসূচির সময়ে, তা দলীয় কর্মসূচিতে কোন প্রভাব পড়বে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তিনি এর আগেও আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করে পরাজিত হয়েছিলেন। তখনও দলেও কোন প্রভাব পড়েনি, এখনও কোন প্রভাব পড়বে না।’

রোশন আলী মাষ্টারের বাড়ির ইফতারের আয়োজন নিয়ে জানতে তার সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায়নি।

মন্তব্য

মন্তব্য