মণিরামপুরে এক মোটর সাইকেল চালককে পিটিয়ে ঘুষ অাদায়ের অভিযোগ।

আলিফ,রিপোর্টার  : যশোরের মণিরামপুরে বিল্লাল হোসেন (২৮) নামে এক মোটর সাইকেল চালককে পিটিয়ে গুরুতর অাহত করেন ওই থানার দুজন পুলিশ কর্মকর্তা। এবং তার কাছ থেকে অাদায় করেন মোটা অংকের টাকা। অাহত বিল্লাল হোসেন কেশবপুর উপজেলার নতূনমূল গ্রামের মোঃ ওলিয়ার রহমানের ছেলে এবং তিনি এলাকায় ভাড়ায় মোটর সাইকেল চালান।অাহত বিল্লাল হোসেন জানান, বছর তিন অাগে তার স্ত্রী শামসুন নাহারের সাথে পারিবারিক মীমাংসার মাধ্যমে তাদের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদ হয়। এরপর থেকে তাদের অাট বছরের মেয়ে মোছাঃ ইয়াসমিন মিন্নি তার মায়ের সাথে নানার বাড়িতে থাকে। গত ১৭ই মে বৃহস্পতিবার সকালে তিনি তার মেয়েকে দেখতে মনিরামপুরের চাকলা কাঠাঁলতলা  গ্রামে তার শশুর বাড়িতে যান। এ সময় শামসুন নাহারের নেতৃত্বে শহিদুল ইসলাম, মকবুল হোসেন,নূর ইসলাম ও অাবু সাঈদ সহ ৮/১০ সন্ত্রাসী মিলে বিল্লাল হোসেনকে এলোপাতাড়ি ভাবে পিটিয়ে অাটকে রেখে পুলিশে খবর দেয়। তারপর মণিরামপুর থানা থেকে এস অাই অামিনুর রহমান ও এ এস অাই অালতাপ হোসেন এসে বিল্লাল হোসেনকে অাটক করে থানায় নিয়ে অাসে। এবং তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেল টিকে ভাংচুর করে। এরপর তার কাছ থেকে এস অাই অামিনুর রহমান ৫০ হাজার টাকা ঘুষ অাদায় করেন। এবং ১৮ মে বিভিন্ন  পেন্ডিং মামলায় তাকে কোর্টে চালান করেন। এরপর ২১ মে অাহত বিল্লাল হোসেন জামিনে মুক্তি পেয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হয়।

অাহত বিল্লালের হোসেনের অভিযোগ, তার স্ত্রী শামসুন নাহার পরকীয়ায় জড়িত। এবং বিভিন্ন সময় তার শিশু কন্যা মারিয়াকে মারধোর করে। তিনি একাধিক বার মেয়েকে নিজের কাছে অানতে গিয়ে হামলার শিকার হয়েছেন।
Attachments area

মন্তব্য

মন্তব্য