শ্রীপুরে মাদক বিক্রয়ে বাধাঁ দেওয়ায় হামলা,আহত-২

নিজস্ব প্রতিবেদক:
গাজীপুরের শ্রীপুরে মাদক ক্রয় বিক্রয়ে বাধা দেওয়ায় দু-যুবক কে মাদকসেবীরা এলোপাথারী দা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে। বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলার বরমী ইউনিয়নের বরনল গ্রামের বাঁশতলায় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলো ভিটিপাড়া গ্রামের ছোলমান কাঁইয়ার ছেলে মাসুদ রানা (৩০) ও তার দোকান কর্মচারী আব্দুর রহমানের ছেলে আজিজুল ইসলাম (৩৫)। এ ব্যাপারে ছোলমান কাঁইয়া বুধবার রাতে শ্রীপুর থানায় ৮জন কে অভিযুক্ত করে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, বরমী বাজার থেকে বরনল গ্রামের বাঁশতলায় পৌঁছলে পাশ্ববর্তী বরনল গ্রামের মোর্শেদ মিয়ার ছেলে কাইয়মের নেতৃত্বে মিজানুর রহমান,পারভেজ, ফালান,সাগর, আল-আমিনসহ অজ্ঞাত ৭/৮জন লোক এলোপাথারী রাম দা, লাঠি লোহার রড দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। তার ডাক চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের কে উদ্ধার করে শ্রীপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। ছোলমান কাঁইয়া বলেন, আমার মেয়ে মাহফুজা আক্তার (রুমা) কে ২০১৩ সালে পারিবারিক ভাবে কাইয়ুমের সাথে বিয়ে দেই। তাদের ১০ মাসের একটি কন্যা সন্তান রয়েছে। বিয়ে হওয়ার কিছুদিন পর মাহফুজা জানতে পারে তার স্বামী মাদকাসক্ত। এ নিয়ে পারিবারিক ভাবে তাদের মাঝে বিরোধ চলছিল। মাদক সেবন করে বিভিন্ন সময় শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন করতো। আমার মেয়ে বাদী হয়ে গাজীপুর বিজ্ঞ আদালতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করে। বর্তমানে মামলাটি আদালতে চলমান আছে।

এলাকাবাসি জানায় কাইয়ূম একজন মাদক ব্যাবসায়ী, গত দু-মাস পূর্বে বরমী ইউনিয়ন পরিষদের গ্রাম পুলিশ ২৩ পিচ ইয়াবাসহ আটক করে। পরে তার বাবা মুচলেকা দিয়ে কাইয়ূম কে ছেড়ে নিয়ে যায় ।

এ ব্যাপারে শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আসাদুজ্জামান জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মন্তব্য

মন্তব্য