চার মাসের মধ্যে গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক//
বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঘনিষ্ট সহযোগী ব্যবসায়ী গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের বিরুদ্ধে দুদকের দায়ের করা অর্থপাচারের একটি মামলা আগামী চার মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে বিচারিক আদালতকে নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে রাষ্ট্রপক্ষের ছয় সাক্ষীকে পুণরায় জেরা করতে মামুনের আইনজীবীদের অনুমতি দিয়েছে আদালত।

বৃহস্পতিবার রাষ্ট্রপক্ষের ছয় সাক্ষিকে পুণরায় জেরার আবেদন খারিজ করে হাইকোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে মামুনের করা লিভ টু আপিলের শুনানি নিয়ে প্রধান বিচারপতির সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার বিচারপতির আপিল বিভাগ বেঞ্চ এ আদেশ দেয়।

গত বছর গিয়াস উদ্দিন আল মামুনের এ আবেদনটি খারিজ করে অদেশ দিয়েছিল হাইকোর্ট।
আদালতে গিয়াস আল মামুনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন সিনিয়র আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী ও এস এম শাহজাহান। দুদকের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান।

মামলার অভিযোগে বলা হয়, টঙ্গীর বিসিক শিল্প এলাকায় একটি ৮০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনের কার্যাদেশ তারেক রহমানের মাধ্যমে পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে খাদিজা ইসলামের কাছ থেকে ২০০৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০০৭ সালের ৩১ মে পর্যন্ত সময়ে মোট ২০ কোটি ৪১ লাখ ২৫ হাজার ৮৪৩ টাকা গ্রহণ করে মামুন। পরে তা সিঙ্গাপুর পাচার হয়েছে বলে অভিযোগে বলা হয়।
দুর্নীতি দমন কমিশনের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ ইব্রাহিম ২০০৯ সালের ২৬ অক্টোবর ক্যান্টনমেন্ট থানায় এ মামলা করেন।

উল্লেখ্য গিয়াস উদ্দিন আল মামুন বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বন্ধু ও ব্যবসায়িক অংশীদার।

মন্তব্য

মন্তব্য