আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন

 

নিজস্ব প্রতিবেদন//মুসলিম উম্মাহর শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় গাজীপুরের টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের আখেরি মোনাজাত সম্পন্ন হয়েছে।আজ রোববার বেলা ১০টা ৩০ মিনিটে মোনাজাত শুরু হয়ে ১১ টা ১৭ মিনিটে সম্পন্ন হয়। তাবলিগ জামাতের শীর্ষস্থানীয় মুরুব্বি কাকরাইল মসজিদের ইমাম মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেন।ইজতেমা ময়দানে বিদেশি নিবাসের পূর্ব পাশে বিশেষভাবে স্থাপিত মঞ্চ থেকে এ মোনাজাত পরিচালনা করা হয়।গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোনাজাতে অংশ নেন। এ ছাড়া গুলশানের বাসা থেকে মোনাজাতে অংশ নেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।এর আগে অনুষ্ঠিত হয় হেদায়েতি বয়ান। হেদায়েতি বয়ান ও আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমার তিন দিনের প্রথম পর্ব। ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব হবে আগামী ১৯ জানুয়ারি। ২১ জানুয়ারি হবে দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাত।এর আগে বিতর্কিত অবস্থানের কারণে তাবলিগ জামাতের এই আয়োজনে এবার অংশ নিতে পারেননি শীর্ষ মুরুব্বি ও দিল্লির মাওলানা সা’দ। ফলে বাংলায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেছেন কাকরাইল মসজিদের ইমাম মাওলানা মোহাম্মদ জোবায়ের।প্রসঙ্গত, প্রায় দুই দশক ধরে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমায় আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করেছেন ভারতের প্রখ্যাত আলেম ও বিশ্ব তাবলিগ জামাতের আমির মাওলানা জোবায়েরুল হাসান। তিনি তিন বছর আগে মারা যান। এর পরের বছর থেকে মোনাজাত পরিচালনা করছেন ভারতের আরেক শীর্ষস্থানীয় তাবলিগ মুরব্বি মাওলানা সা’দ। এবার তিনি বিতর্কিত অবস্থানের কারণে এবর মোনাজাত পরিচালনা করেন নি।জানা গেছে, প্রায় ১০০ বছর আগে ইসলামের দাওয়াতি কাজকে ত্বরান্বিত করতে মাওলানা ইলিয়াছ শাহ (রহ.) দিল্লীর নিজামুদ্দিন মসজিদ থেকে তাবলিগের কাজ শুরু করেন। মাওলানা ইলিয়াছের (রহ.) ছেলে মাওলানা হারুন (রহ.)। তাঁরই ছেলে হলেন মাওলানা সাদ কান্ধলভী। ২০১৫ সাল থেকে মাওলানা সাদ আখেরি মোনাজাত পরিচালনা করে আসছেন। এর আগে তিনি টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে তাবলিগের বয়ান দিতেন।

মন্তব্য

মন্তব্য