পঞ্চগড়ে চলছে পঁচা মরিচের জমজমাট ব্যবসা !!

মুহম্মদ তরিকুল ইসলাম, পঞ্চগড় জেলা প্রতিনিধি// সর্বো উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে চোখের সামনে চলছে পঁচা মরিচের জমজমাট ব্যবসা। প্রকাশ্যে দিনে দুপুরে পঁচা মরিচ বস্তাবন্দি করে ট্রাকে করে দেশের বিভিন্ন স্থানে পাঠানো হচ্ছে। শহরের প্রাণকেদ্রে ব্যাবসা চললেও প্রশাসনের কোনো নজরদারি নেই। তবে এসব পঁচা মরিচ দিয়ে কি করা হয় তা জানাতে রাজি নয় মরিচ ব্যাবসায়ীগণ। খবর নিয়ে জানা যায় এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ী জেলার বিভিন্ন হাঁট থেকে কম টাকায় পঁচা মরিচ সরবরাহ করে তা বস্তাবন্দি করে পাঠাচ্ছেন দেশের বিভিন্ন স্থানে। পঞ্চগড়ের ঝলই, ফুটকীবাড়িসহ কয়েকটি হাঁট বাজারে জম জমাট চলছে পঁচা মরিচের ব্যবসা। পঞ্চগড় শহরের জালাসী বাজারের পাশে একটি গুদামে দীর্ঘদিন ধরে পঁচা মরিচের ব্যবসা করে আসছে পাশর্^বর্তী চাঁনপাড়া এলাকার ভবেশ চন্দ্র রায়। স্থানীয়রা এ বিষয়ে প্রশাসনের কাছে বার বার অভিযোগ করলেও কোন ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি। রোববার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, গুদামে থাকা পঁচা মরিচ বস্তাবন্দি করছে মরিচ ব্যবসায়ী ভবেশের কর্মীরা। গণমাধ্যমকর্মীদের উপস্থিতি টের পেয়ে কিছুক্ষণের মধ্যেই একে একে তারা সটকে পড়ে। পরে স্থানীয়রা প্রথমে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর পঞ্চগড়ের সহকারী পরিচালক হেলাল উদ্দীনকে অবহিত করলে তিনি ছুটিতে আছেন বলে জানান। এরপর তারা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করলে তিনি ঘটনাস্থলে পুলিশ প্রেরণ করেন। পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে এবং ভবেশ চন্দ্রকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। কিন্তু তারপর আর কোনও ব্যবস্থা নিতে দেখা যায়নি। এ বিষয়ে ভবেশ চন্দ্র রায় জানান, আমরা এসব মরিচ জেলার বিভিন্ন বাজার থেকে ১ হাজার টাকা মণ দরে ক্রয় করে রংপুর হারাগাছে রাশেদ নামে এক ব্যক্তির কাছে তা সরবরাহ করি। তিনি এই মরিচ দিয়ে কি করেন তা আমরা বলতে পারি না। পঞ্চগড় জালাসী এলাকার শামীম মাহমুদ জানান, আমরা অনেক দিন থেকেই দেখছি ওই লোক এখানে পঁচা মরিচ বস্তাবন্দি করে ট্রাকে করে বিভিন্ন জায়গায় পাঠাচ্ছে। এসব মরিচ খাওয়ার উপযোগী নয়। শুনতেছি এসব মরিচ ভাল মরিচের সাথে মিশিয়ে গুড়া করে বিক্রি করা হয়। বিষয়টি প্রশাসনের গুরুত্বের সাথে দেখা দরকার। অত:পর ফিরোজ ইসলাম জানান, পঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছে নিশ্চয়ই এর মধ্যে কোন রহস্য আছে। আমরা এ বিষয়ে প্রশাসনকে বার অবহিত করলেও তারা কোন ব্যবস্থা নিচ্ছে না। তাই ভবেশের মতো অনেকে অসাধু ব্যবসায়ী প্রশাসনকে ফাকি দিয়ে গোপনে বা প্রকাশ্যে হাটে-ঘাটে গুদাম তৈরি করে পঁচা মরিচের ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। আর প্রশাসন দেখেও না দেখার ভান করছে।

মন্তব্য

মন্তব্য