স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে লড়বেন পুতিন

 

আগামী বছরের মার্চে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। নির্বাচনের আগে বার্ষিক সংবাদ সম্মেলনে এসে বৃহস্পতিবার দেশটির প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ষষ্ঠ মেয়াদে নির্বাচনে লড়াইয়ের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছেন। তবে এবারের নির্বাচনে রাশিয়ার এই প্রেসিডেন্ট স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়বেন বলে জানিয়েছেন।
বৃহস্পতিবারের তার এই ম্যারাথন সংবাদ সম্মেলন প্রায় পাঁচ ঘণ্টা ধরে চলে। এক হাজার ৬০০ জনের বেশি সাংবাদিক সম্মেলনে অংশ নেন। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ব্যাপারে গত সপ্তাহে দীর্ঘ প্রতীক্ষিত ঘোষণা দেয়ার পর আজ এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। মস্কো রেডিও স্টেশনের এক প্রশ্নে শুরু হয় তার এই সম্মেলন।
রাশিয়ার জনগণের জীবন-মানের উন্নয়নের জন্য তিনি নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন বলে জানান। ১৯৯৯ সাল থেকে দেশটির ক্ষমতায় আছেন ভ্লাদিমির পুতিন।তবে এবারের নির্বাচনে তার ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল ইউনাইটেড রাশিয়া ছাড়াই তিনি স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে লড়বেন বলে জানান। সংবাদ সম্মেলনে পুতিন বলেন, দেশের উন্নয়নের স্বার্থে রাজনৈতিক বিভিন্ন পক্ষের সমর্থন লাভের আশায় তিনি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।একজন সাংবাদিক নির্বাচনে বিরোধীদলের প্রতিদ্বন্দ্বিতার ব্যাপারে পুতিনকে প্রশ্ন করেন। যারা কেবলমাত্র নামেই প্রতিযোগিতা করবেন। নির্বাচনে পুতিনের জয় প্রায় নিশ্চিতই। স্বতন্ত্র জরিপ প্রতিষ্ঠান লেভাদা বুধবার এক জরিপের ফল প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়, মার্চের নির্বাচনে পুতিনকে ভোট দেয়ার জন্য প্রস্তুত আছেন ৭৫ শতাংশ ভোটার।সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে পুতিন বলেন, নির্বাচনে বিরোধী প্রার্থী তৈরি করা কী আমার কাজ? আমি মনে করি অর্থনীতির মতো রাজনীতিতেও প্রতিযোগিতা হওয়া উচিত। আমি এটার জন্য লড়াই করবো।রাশিয়ার এবারের নির্বাচনে বিরোধী দলীয় নেতা অ্যালেক্সি নাভালনির ওপর সরকারি নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। তার বিরুদ্ধে ফৌজদারি অপরাধের অভিযোগ থাকায় নির্বাচনে লড়াই করতে পারবেন না। তবে বিরোধী দলীয় এই নেতা বলেছেন, শুধুমাত্র রাজনৈতিক উদ্দেশ্যেই তাকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখা হচ্ছে।

মন্তব্য

মন্তব্য