শিয়ালের মাংসে পিকনিকের আয়োজন করে আলোচনায় এসেছে টাঙ্গাইলের একদল যুবক

আশিকুর রহমান, টাঙ্গাইল  :
পিকনিক বা চড়ইভাতি বহুকাল ধরেই চলে আসছে। সমবয়সীরা মিলে পিকনিক করবে এটা নিশ্চিত আনন্দদায়ক। তবে শিয়াল মেরে ব্যতিক্রমী পিকনিকের আয়োজন করে আলোচনায় এসেছে টাঙ্গাইলের বাসাইলের একদল যুবক।শিয়ালকে কলাকেটে হত্যা করে ওই যুবকরা শনিবার রাত ৮টার দিকে পিকনিকের আয়োজন করে । উপজেলার সোনালিয়া গ্রামের কয়েকজন যুবক দুপুরে দৌড়িয়ে একটি শিয়াল আটক করে। শিয়ালের মাংস খেলে নাকি শরীরের ব্যথা ভাল হয়, এমন ধারণা থেকেই তারা শিয়ালটিকে গলাকেটে হত্যা করে খাওয়ার আয়োজন করে। শিয়ালের মাংস খাওয়ার জন্য অনান্য মসলা কেনার উদ্দেশ্যে প্রতিজনের কাছ থেকে ৫০ টাকা করে চাঁদা তোলা হয়।  শিয়ালের মাংস রান্না হয় স্থানীয় বারেক আলীর বাড়িতে। আয়োজনের খবর পেয়ে স্থানীয় ২৫/৩০ জন যুবক ছাড়াও বেশ কয়েকজন বয়স্ক শিয়ালের মাংস খেতে ওই পিকনিকে অংশ নেয়। মনির নামে এক যুবক বলেন, দুপুরে শিয়ালটি ধরা হয়। ছোট বেলা থেকেই শুনে আসছি মুরুব্বিরা বললেন- শিয়ালের মাংস খেলে নাকি শরীরের ব্যথা ভাল হয়। তাই আমরা নিজেদের মধ্যে কিছু চাঁদা তোলে এটি রান্না করে খেয়েছি। মাংসের স্বাদ মোটামুটি ভালই।

বাবুর্চির দায়িত্ব অংশ নেয়া খলিল নামে এক যুবক বলেন, অনেক উৎসাহ নিয়েই শিয়াল রান্না করেছি।

মন্তব্য

মন্তব্য