বীর হতে চাননি, তবু বীর

কোরি ফেনটনের বেশ কয়েকটি পরিচয়। তিনি পেশায় প্যারামেডিক। জরুরি চিকিৎসাসেবায় নিয়োজিত অ্যাম্বুলেন্সের ক্রু হিসেবেও কাজ করেন। এর সঙ্গে ফায়ার সার্ভিসের স্বেচ্ছাসেবী। এসব ছাপিয়ে তাঁর বড় পরিচয়—স্থান, কাল, পাত্রভেদে মানুষকে সহায়তা করার বেলায় কখনো পিছপা হন না তিনি।

যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভানিয়ার মার্সার কাউন্টির হারমিটেজ শহরের বাসিন্দা কোরি সম্প্রতি সেবা, মানবিকতা ও সাহসিকতার এক অসাধারণ নজির স্থাপন করেছেন। এ জন্য তিনি স্বীকৃতিও পেয়েছেন। তাঁকে নিয়ে গর্ব করছে হারমিটেজ শহর।

কোরি ফেনটন ও ক্যারোল ফেনটন দম্পতির মেয়ে ক্রিসি আম্মার কর্মসূত্রে নেভাদা অঙ্গরাজ্যের বিলাসবহুল লাস ভেগাস শহরে থাকেন। এই সুবাদে লাস ভেগাসে যাওয়া-আসা আছে কোরি-ক্যারোলের।

১ অক্টোবর রাতে লাস ভেগাসের মান্দালাই বে হোটেলের পার্শ্ববর্তী রাস্তায় অনুষ্ঠিত উন্মুক্ত কনসার্ট উপভোগ করছিল কোরি পরিবার। তারা কনসার্টের মঞ্চের কাছেই ছিল। হঠাৎ টানা শব্দ। কোরি প্রথমে ভেবেছিলেন আতশবাজি। শিগগিরই তাঁর ভুল ভাঙে। পাশের লোকজনকে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে দেখেন তিনি। তারা রক্তে ভিজে যাচ্ছিল। আর বাঁচার জন্য আকুতি জানাচ্ছিল। কনসার্টে আসা লোকজনের ওপর আকাশ থেকে বৃষ্টির মতো গুলি বর্ষিত হচ্ছিল।

গুলির উৎস—কনসার্টের পার্শ্ববর্তী মান্দালাই বে হোটেলের ৩২ তলার একটি কক্ষ। সেখান থেকে নির্বিচারে গুলি ছুড়ছিলেন ৬৪ বছর বয়সী স্টিফেন প্যাডক। তাঁর ছোড়া গুলিতে অন্তত ৫৮ জন নিহত ও পাঁচ শতাধিক ব্যক্তি আহত হয়। পরে প্যাডক আত্মহত্যা করেন।

কনসার্ট লক্ষ করে গুলি ছোড়া হচ্ছে বুঝতে পেরে দ্রুত পরিবারের সদস্যদের নিরাপদে মঞ্চের নিচে নিয়ে যান কোরি। এবার নিজের জীবনের তোয়াক্কা না করে কোরি তাঁর আসল কাজে ঝাঁপিয়ে পড়েন। তুমুল গুলির মধ্যেই আহত লোকজনের কাছে ছুটে যান তিনি। ঘটনাস্থল থেকে আহত লোকদের সরিয়ে নিতে থাকেন। তাদের অ্যাম্বুলেন্সে তোলার ব্যবস্থা করেন। ভয়ংকর সেই পরিস্থিতিকে যুদ্ধক্ষেত্রের মতোই মনে হচ্ছিল কোরির। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘লোকজন পড়েছিল। চারদিকে রক্ত আর রক্ত।’

তাৎক্ষণিকভাবে ঘটনা মোকাবিলার মতো যথেষ্ট প্রস্তুতি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের ছিল না। কিন্তু বিপৎসংকুল সময়ে করণীয় খুব ভালোভাবেই জানা ছিল কোরির। তিনি আক্রান্ত মানুষের সাহায্যার্থে নিজের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগান। একপর্যায়ে কনসার্টের মঞ্চের নিচে ফিরে যান। সেখানেও অনেক আহত ব্যক্তি ছিল। তিনি তাদের প্রাথমিক চিকিৎসাসেবা দেন। আহত ব্যক্তিদের রক্তপাত বন্ধে জোর চেষ্টা চালান। তাদের বাঁচিয়ে রাখতে প্যারামেডিকের জ্ঞান প্রয়োগ করেন। ওই দিন কম করে হলেও ৫০-৬০ জন আহত ব্যক্তিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছেন বলে ধারণা কোরির।

কোরির বীরত্বের কথা পরে গণমাধ্যমে আসে। সম্প্রতি তাঁর অবদানকে স্বীকৃতি দেয় হারমিটেজ শহর কর্তৃপক্ষ। কোরির অবদান স্মরণ করে হারমিটেজ বোর্ড অব কমিশনারসের প্রেসিডেন্ট উইলিয়াম জে. মডার বলেন, ‘এটা সত্যিকারেই বীরোচিত ও মহান কাজ। তাঁকে (কোরি) স্বীকৃতি দিতে পেরে আমরা গর্বিত, সম্মানিত।’

কোরি অন্য রকম মানুষ। তাই নিজের বীরত্ব নিয়ে কথা তাঁর যত লাজ। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি কেবল আমার কাজটুকুই করেছি। আমি বীর হওয়া জন্য কিছু করিনি।’

মন্তব্য

মন্তব্য